দমকা হাওয়া

প্রিয়জনের সঙ্গে শেয়ার করুন :--👍

 26 total views

এইকি তবে আমার দেশ, বিশ্রাম নাই যার
দমকা হাওয়াও রাখেনি কথা, কেই বা থাকে কার?
বৃষ্টি আসে বেমালুম তাই জানালার শার্শিতে
ভিজে যায় মুখ জলের স্রোতে, সুখটাকে হয় দিতে
রাখেনি কথা সেই মানুষ, রক্ত যাদের আছে
তারাই আপন তবুও আমার জীর্ণ শরীরের কাছে
এইতো সবে বিকেল বেলা রাত্রি আসবে বলে
উড়িয়ে দিলে খেলার ফানুস, বিরহ মলিন ছলে?
আমরাও চাই বাঁচতে আবার, দুবেলা দুমুঠো খেতে
উচ্চাকাঙ্ক্ষা নেই শরীরে, চাইনাকো কিছু পেতে
শরীর জুড়ে নিঃশ্বাস বয় ধমনী ছাড়ে রক্ত
আমার দেহ আমার কাছেই হয় যদি অব্যক্ত
নেবে তার দায়ভার, নিঃসঙ্গ একাকী
পাথর হয়ে শুনবে আমার অভিশপ্ত জোনাকি?
মাঝ আকাশে মেঘের সনে ভাসিয়ে দিলে ভেলা
হায় তুমি কি অ-বলা?
গড়িবে কি এই পাহাড়প্রমাণ মৃত্যু, প্রাণের মেলা
আর প্রানে নাহি সয়
বিমুখ হয়ে প্রাণ প্রজাপতি ক্ষমার আদলে কয়
আর প্রাণে নাহি সয়
অহেতুক সব মিথ্যে গুলোর আড়ালে হাসলে হাসি
নিরবে পড়ালে আমার কন্ঠে মৃত্যুমরণ ফাঁসি
হায়রে অশ্রুতল, তোমার ব্যাথার প্রতি
নিমেষে হারালো যে জনা আজিকে তার দিবসের জ্যোতি
তাই ফিরিয়া কহি ব্যথার সমুখ টানে
যে কথা রটিছে আমাকে ব্যতীত তোমার গহীন কানে
ভাসিয়ে দিও তাহা, দীপ্ত নদির পাড়ে
আমি নির্দোষ বিশ্বাস করো, বলব তোমারই তরে
সে সুযোগ আজ কোথা
যেথা থেমে যায় ব্যাথা
সেই তরুণীকে আমার প্রণাম, নতজানু হয়ে আছি
তোমারই পানে তোমারই দিকে, হৃদয়ের কাছাকাছি
সে প্রমাণ করিবে কে জন
আজি বিদায় এর আগে
দমকা হাওয়ায় আমার কহিতে কিছু কথা আজ জাগে
যাহা বলিয়াছে লোকে, মোর সম্মুখে দাঁড়ায়ে সেদিন
এ নহে প্রিয় আমার কথা, এ আমার দুর্দিন
যতদিন ছিল সুদিনে ঘেরা মহাকাশ আর তারা
একই সাথে মোরা চলেছিলাম, উজানে হয়েছি হারা
দেখিয়াছি পথ, তিমির রাত্রি, বন্ধুরা সব ছিল
রাত্রি হয়েই ছাড়াছাড়ি হল, দিনগুলো সব গেল
ফিরে যেতে চাই সেদিনে আবার ডাকে ওই যাত্রীরা
তোমার প্রাণে সঁপে যেতে চাই, আমার অমোঘ হীরা
সে নয় কোন তুফান, কিম্বা সাজানো মিথ্যে কোনো
বন্ধুরা সব চলে গেলে যারা, আজ বিদায়ের আগে শোনো
আমার কন্ঠ হয়তো আর উঠিবে না সেই দিনে
দিন কাটাবো আপন মানুষ, বন্ধু, প্রিয় বিনে
দোষীরা সব পেয়ে যায় ক্ষমা সবাই স্বার্থপর
আমার দুয়ারে দাঁড়িয়ে আজকে মৃত্যু গহীন চর
বালুকার পাশে সে দৃশ্য আজি আমার চোখের পানে
ধুসর করেছে বিদার রাত্রি, সব সুখ অবসানে
জলের স্রোতে হারায়েছি সব, কুলে নাই আর ভেলা
তাই নিয়ে তুমি খেলেছ আমার জীবন নিয়েই খেলা
সে খেলা কাহারে কয়?
জন্মের পরে যে মানুষ আজি মৃত্যু কুপেতে রয়
চতুর্পার্শ্বে মেতেছে আজিকে আমার বিদায় বেলা
নির্দোষ নয় দোষীর ছলেই শেষ হল মোর খেলা
ওহে বন্ধু তোমরা শোনো
ধূলিতে আজিকে তুমিও চাইছো প্রানের মানুষ কোনো
সে যদি থাকে পাশে আর কিছু নাহি চাই
আমার আমিকে সেইদিন আমি নিজের ভেতরে পাই
কি হবে খেলে হিংসার খেলা, শুধুই কি মিথ্যে বলি
এসেছিল যারা সুবাস সঙ্গে, তারাও গিয়াছে চলি
বন্ধু আমার আশ কেহ নাই আর
সেদিন যখন করেছিলে তরী পার
সেই তীরে আজ দেখেছি বিদায় বেলা
সম্পর্কের সবই যে আজ হৃদয় ভাঙ্গার মেলা
আজি সন্ধ্যার আগে,
কিছু কথা আজও বলিতে যে সাধ জাগে
আমার গহীন পুড়ছে আজিকে তোমারই বিরাগে
তাই প্রাণে মোর জাগে, আজি বিদায়ের আগে
মৃত্যুর পরও সাধ থেকে যায়, কিছু স্মৃতিগুলো ছিল
নাজানি সেজনা ওইপারে আজ নতুন কাহাকে পেল
জল থেকে আমি বেরিয়ে এসেও সেদিন পাইনি দেখা
তোমার মুখের চাদরে ছিল যে তাহার ছবি রাখা
তবুও দেখিতে চাই, তোমার মুখের ছায়া
মরণ কামড় দিয়া করিছে আমার হৃদয় কায়া
বন্ধু রেখো গো মনে
তোমারই প্রাণের চরণে ধরিয়া তোমারই গহীন তনে
বন্ধু রেখো গো মনে,
আজি এই কথার, যদি কোনো শেষ হতো
বিদায়ের আগে রনদামামা বাজিয়ে দিতাম যত
হয় যদি হোক শেষ সবই, মুছে যাক যবে যে ছিল
তবুও জেনো সবাইকে ছেড়ে তোমাকেই সে পেল
হিসেব গুনে ক্ষমা করে দিও, তুলব দিব্য শিখা
তোমারই চরণে অঞ্জলী দেব, লিখব প্রণয় লিখা
সাথী লয়ে যাই দুখ
কার কবে আমি শেষ করেছি তাহার গভীর সুখ
তবুও তোমার কাছে বঞ্চিত হয়ে আসি
হয়তবা এই মনখানি আমি বড়োই ভালোবাসি
তবুও তুমি দাও মোরে কেনো কণ্ঠ পাড়ায় ফাঁসি?
আমার সাধের হাসি লুকায়ে রেখেছি কোণে
তবুও সে শুধুই চায়, তোমার ধুলায় লুটায়ে মনে
জানি না কেনো দূরে তব আমার অজয় পাখি
জয়ীদের শুধু দেবে সাহারা, আমার বন্ধ আঁখি
আজ আমার বন্ধ আঁখি
চিৎকার ভেসে আসে, নিভৃতে তুমি কাদো
হয়তো বা অন্য কাওকে নিজের করিতে সাধো
তবে তাই যেনো আজ হয়
আমার দুঃখ আমারই কাছেতে চির মলিন হয়ে রয়
তবে তাই যেনো আজ হয়
তোমারই চক্ষে বিশ্বাসের সে মৃত্যু দেখিতে পাই
আমার ভুলের সব ক্ষমা তাই করিবে কিনা, হায়
তাই ভেবে নাই পাই
ধুলায় লুটায়ে পড়েছি তবুও কেনো যে তোমারে চাই
হায় ভেবে নাই পাই, কেনো যে তোমারে চাই
বাতায়ন যবে হবে গো স্নিগ্ধ, সকাল হবে আমার
তোমাতেই আমি ছুটে চলে যাবো, ছুঁতে হাতখানি তোমার
শুধু তোমারই হতে যে চাই, তুমি হতে পারো অন্য কারো
তবুও তুমিতো আমারই স্বপ্ন, আমারই বুকের পারো
কিছু মুছবে কিনা জানিনা
তোমার মধ্যে জমেছে ছলনা, তাও মানিনা
সেই মানুষ আজ তুমি, একান্ত প্রিয় তুমি
সাত সাগরের মাঝি বৈঠা হারায়ে যার দেহ যায় চুমি
সেই তো বাঁধনহারা সর্বহারা একান্ত আমার “তুমি”
তুমি সর্বহারার গান আর বন্ধুর চিৎকার
কলমের খোঁচা দাড়ি, কমা তুমি আমার মনের ভার
তুমি আমার কলমে জেগে ওঠা বাণী তুষারময়ীনি মা
শুধু তোমারে সেবিতে লিখি আমি আর কারোরে বোঝাতে না
তুমিই আমার প্রাণের মা, গহীন তব মা
তুমি আমার দীপ্ত উচ্ছ্বাসময় কন্ঠ, স্লোগান, ধ্বনি
তুমি আমার প্রানের পেয়ালা, আমার গুপ্ত হীরের খনি
তুমি আমার প্রাণের ধ্বনি, আমার দীপ্ত তব ধ্বনি
আজি এই ঘটনার লাগি
স্তব্ধ রাতে হারায়েছি পাল কালো রাত্রি ভর জাগি
তবুও তোমারে মাগি, হাত জোর করে আজি
কবির বাঁধন উন্মুক্ত আজ কারোনা কারো লাগি
হাত জোর করে মাগি
কালির কলম শুধু কি বন্য, আর কারো তরে নয়
হায় যার তরে আমি লিখি, সেই প্রাণে নাহি সয়
দুঃখের প্রদীপ জ্বালিলো সেজনা ব্যথিত হয়ে মরু
পাশ ফিরে আজি শুয়ে আছে দেখো শত গিরি, কানন, তরু
তাদের কভু করো নাই অবহেলা
দিবসে যে রৌদ্র আনিলো জোয়ার, তারে ভাসাইলে ভেলা?
এই কি তোমার মরণ ব্যাধি, মিথ্যের দোষে খেলা
আর করো নাহি দুখ
পাষাণ বক্ষ বিতাড়িত করে আসিল পরম সুখ
তারে আর দিও নাহি দুখ
দমকা হাওয়ায় উড়িছে আজকে আমার কপতখানি
মুষ্টিমেও সভ্যতা, ও তার পূর্ব মৃত্যু শুনি
উড়িছে আজিকে দমকা হাওয়ায় আমার বিবাগী মনী
ক্লান্ত হাওয়ায় নিবিড় পাতায় শান্ত হয়েছে খুনি
রৌদ্র শেষে ওঠে যে ঝড়, তোমার দুয়ার পরে
চরণ সেবিতে সেজনা আনিছে বৃষ্টি তোমারই তরে
আমার ব্যক্ত সমস্তটাই লেখাগুলোর আনমনে
রেখেছো কোথায় দিবসের রোদে সে কথা মনের কোণে?
আজি বিদায় এর আগে, অনেকই তো সাধ জাগে
তবুও বলিতে লাগে, বসুন্ধরা মাগে
তোমার চরণ রাগে
বন্ধুর তব বন্ধু তুমি, আমার প্রাণের ধ্বনি
কন্ঠপাড়ায় উঠেছে আজিকে, অহরহ রনরণী
তোমার সে গান হয়েছে আজিকে, মোর কণ্ঠেতে আসি
সব জবানই হয়েছে আজকে গলার তব ফাঁসি
তবুও বলিতে আসি
সম্মুখে নিয়ে ফাঁসি
তেজধারী তুমি, বিপদের মা রক্ষাকবচ তব
নয়নের কূলে উদ্ভাসিত চন্দ্র তুমি নব
দিবসের রোদে আজিকে পুরিছ হয়ে গ্রীষ্মের চিল
কত লোকে আজ মারিছে তোমারে, কত জন্মের ঢিল
তবুও তুমি অটল তোমার প্রাণের বিন
আমার পাড়ায় রচিছে আজিকে কাব্য, গল্প,
যাহা রবে চিরকাল লীন।।

Publication author

কবি, সাহিত্যিক, সম্পাদক
Comments: 0Publics: 6Registration: 22-06-2022
প্রিয়জনের সঙ্গে শেয়ার করুন :--👍
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments